• শনিবার   ২৭ নভেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১২ ১৪২৮

  • || ২০ রবিউস সানি ১৪৪৩

ঝালকাঠি আজকাল

ইকবাল ভবঘুরে কিংবা পাগল নয়: সিআইডি

ঝালকাঠি আজকাল

প্রকাশিত: ১ নভেম্বর ২০২১  

কুমিল্লায় ধর্ম অবমাননায় প্রধান অভিযুক্ত ইকবাল হোসেন ভবঘুরে কিংবা পাগল নয়। সে সুস্থ মস্তিষ্কের একজন মানুষ। মোটরযান শ্রমিক হিসেবে সে একসময় কাজ করত। ইকবালকে অত্যন্ত বিচক্ষণ দাবি করে রিমান্ডে তার কাছ থেকে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়ার দাবি সিআইডির। এদিকে স্থানীয় সংসদ সদস্যের দাবি, টাকার বিনিময়ে ইকবালকে ব্যবহার করে পরিকল্পনা বাস্তবায়নের চেষ্টা ছিল একটি গোষ্ঠীর।

কুমিল্লার পূজামণ্ডপে কোরআন শরিফ রেখেছিল ইকবাল হোসেন, সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর অনেকেই তাকে ভবঘুরে কিংবা পাগল আখ্যা দিয়েছিল। পরিবারের পক্ষ থেকেও দাবি করা হয়েছিল সে মানসিকভাবে অসুস্থ।

ঘটনার পর ইকবালকে পুলিশ খুঁজে পায় কক্সবাজারের সমুদ্রসৈকতে। জানতে পারে কুমিল্লা থেকে ট্রেনে চড়ে চট্টগ্রাম, সেখান থেকে কয়েক দফা যাত্রাবিরতি দিয়ে ইকবাল পৌঁছায় কক্সবাজারে। যাত্রাপথে মসজিদ থেকে আবারও কোরআন চুরি। পুলিশের দাবি একজন পাগলের পক্ষে এসব করা সম্ভব নয়।

কুমিল্লার বিশেষ পুলিশ সুপার (সিআইডি) খান মুহাম্মদ রেজোয়ান জানান, ইকবাল ঘটনার পরে পালিয়ে গেছে কক্সবাজারে। একজন পাগলের পক্ষে ট্রেনে উঠে চট্টগ্রাম, সেখান থেকে কক্সবাজার যাওয়া সম্ভব নয়।

এদিকে প্রধান অভিযুক্ত ইকবাল হোসেন রিমান্ডে নতুন নতুন তথ্য দিচ্ছেন। এতে রহস্য উদঘাটন ও ইন্ধনদাতাদের শনাক্ত করা সহজ হবে বলে জানিয়েছেন তদন্তসংশ্লিষ্টরা। রিমান্ডে থাকার অন্য আসামিরা যেসব তথ্য দিচ্ছেন তাও যাচাই করা হচ্ছে।

ইকবালকে অত্যন্ত বিচক্ষণ দাবি করে সিআইডি বলছে, তাকে ভবঘুরে বলার সুযোগ নেই। বিশেষ পুলিশ সুপার আরও জানান, ইকবালের ন্যাশনাল আইডি কার্ড আছে। এ ছাড়া মটর শ্রমিক হিসেবে পেশায় নিয়োজিত ছিল। অন্যদিকে মসজিদের খেদমতে কাজ করত ইকবাল। পুলিশের দাবি, সুস্থ মস্তিষ্কের একজন বিচক্ষণ মানুষ ইকবাল।

স্থানীয় সংসদ সদস্যের দাবি, নিজেদের পরিকল্পনা বাস্তবায়নে ইকবালকে ব্যবহার করেছে কোনো গোষ্ঠী। কুমিল্লা ৬ আসনের সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার জানান, ইকবাল ভবঘুরে বলে তাকে টাকা দিয়ে কাজ করানো হয়েছে।

ধর্ম অবমাননায় অভিযুক্ত ইকবালসহ ৪ আসামিকে দ্বিতীয় দফা রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ সিআইডি।

 

ঝালকাঠি আজকাল