• শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১৭ ১৪৩০

  • || ১৯ শা'বান ১৪৪৫

ঝালকাঠি আজকাল
ব্রেকিং:
নতুন নতুন অপরাধ দমনে পুলিশকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ ‘কোনো একটি জিনিস না খেলে রোজা হবে না, এ মানসিকতা পাল্টাতে হবে’ পণ্যমূল্য সহনীয় রাখতে সরকারের পাশাপাশি জনগণেরও নজরদারি চাই রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম সহনীয় পর্যায়ে থাকবে পুলিশকে জনগণের বন্ধু হয়ে নিঃস্বার্থ সেবা দেয়ার নির্দেশ রাষ্ট্রপতি বিশ্বের সম্ভাব্য সকল স্থানে রপ্তানি বাজার ছড়িয়ে দেয়ার আহ্বান বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা জরুরি গভীর সমুদ্র থেকে গ্যাস উত্তোলনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার পুলিশ জনগণের বন্ধু, সে কথা মাথায় রেখেই দায়িত্ব পালন করতে হবে অপরাধের ধরন বদলাচ্ছে, পুলিশকেও সেভাবে আধুনিক হতে হবে

ঘুরে আসুন ৪০০ বছরের পুরোনো ‘ট্রি হাউজ’ থেকে

ঝালকাঠি আজকাল

প্রকাশিত: ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  

আমরা আমাদের এই জীবনটা সুন্দর ভাবে কাটাতেই পছন্দ করি। আর সেই জীবনে আমরা চাই, শুধুই অ্যাডভেঞ্চার আর অ্যাডভেঞ্চার। তার জন্য আমরা নানা রকম ব্যবস্থা গ্রহণ করি। যেমন- কখনো যাই বনে জঙ্গলে, আবার কখনো পাহাড় সমুদ্রে।
যারা এরকম ভাবে অ্যাডভেঞ্চারের সাহায্যে নিজেদের জীবনকে উপভোগ করতে চান, তাদের জন্য রইল একটা নতুন ঠিকানা।

আমাদের পৃথিবীতে নির্বিবাদে গাছ কেটে দেওয়া হয়। গাছকে সঙ্গে করে নয়, গাছ কেটে সেই জায়গার ওপড়ে বানানো হয় বাড়ি। কিন্তু এই বিশ্বব্রহ্মাণ্ডে কিন্তু এরকম অনেক মানুষ আছেন যারা সত্যিই প্রকৃতিপ্রেমী। ভালোবাসেন প্রকৃতিকে।

তাই গাছ কেটে নয়, গাছকে সঙ্গী বানিয়ে তৈরি করলেন সাধের বাড়ি। বলছি কেরলের দম্পতি পলসন ও এলজা’র কথা। তাদের ইচ্ছা ছিল প্রকৃতির সঙ্গে বসবাস। আর তাই জঙ্গলের মধ্যেই গাছের ওপর বানালেন বাড়ি।

এই স্বামী-স্ত্রী দুজনেই দীর্ঘ দিন দুবাইতে ছিলেন। কিন্তু সেখানে একদম তাদের ভালো লাগছিল না। কারণ সেখানে গাছপালা নেই। প্রায়ই তারা চিন্তা ভাবনা করতেন কেরালায় ফেরার। তাদের চার সন্তানও যেন এক প্রকৃতির সান্নিধ্যে থাকতে পারে সেটা করার জন্য তারা  দুবাই থেকে ফিরে গেলেন কেরালায়।

মুন্নারের খুব কাছে দবগিরি নামক জায়গায় পলসনের দাদু জমি কিনেছিলেন, সেখানে চাষবাস করতে শুরু করেন। কোনো গাছ কাটেননি। বন্য প্রাণী যাতে গাছের কোনো ক্ষতি না করে তার জন্য গাছের ওপর একটি ওয়াচটাওয়ার তৈরি করেন, আর সেই ওয়াচ টাওয়ার দেখে তিনিও ভাবেন এরকম ট্রি হাউজ বানাবেন । আর তাই দুবাই থেকে ফিরে তাই করলেন।

এই ট্রি হাউজ তৈরি করতে তারা ৪০০ বছর পুরোনো একটি কালোজামের গাছ বাছাই করে নেন। ১০ ফুট উঁচু দোতলা বাড়ি তৈরি করেন গাছের ওপর। এই বাড়ি তৈরিতে কোনো কৃত্রিম উপকরণ ব্যবহার হয়নি। এই বাড়িতে আছে চারটি ঘর, সবকটাতেই রয়েছে আলাদা স্নানঘর। বাড়ির আশেপাশে হচ্ছে চাষবাস। আর সেই বাড়ির একতলা  থেকে সবটা দেখা যায়।

জঙ্গলের মাঝে প্রকৃতির কোলে থাকতে কেরলের এই ট্রি হাউজে যেতেই পারেন। পলসন জানান, ‘যেকোনো প্রকৃতিপ্রেমী মানুষ যদি আমাদের বাড়িতে এসে থাকেন, তাহলে  জঙ্গলের মাঝেই বাড়িতে বানানো খাবারের স্বাদ উপভোগ করতে পারবেন। আর এই সবুজে ঘেরা চারপাশ দেখলে মন ভালো হবেই’।

ঝালকাঠি আজকাল