• বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ৮ ১৪৩০

  • || ১০ শা'বান ১৪৪৫

ঝালকাঠি আজকাল

আমদানি বাড়ায় কমেছে আলু-পেঁয়াজের দাম

ঝালকাঠি আজকাল

প্রকাশিত: ২৮ নভেম্বর ২০২৩  

হরতাল-অবরোধের মধ্যেও চলতি সপ্তাহে দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরে বেড়েছে পণ্যের আমদানি; সেইসঙ্গে কমেছে আলু, পেঁয়াজসহ নিত্যপণ্যের দামও। মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) হিলি বাজারে গিয়ে দেখা যায়, প্রতি কেজি আলু ৫ টাকা কমে বন্দরে বিক্রি হচ্ছে ২৫ থেকে ২৬ টাকা। পেঁয়াজ কেজিতে ৫ টাকা কমে বিক্রি হচ্ছে প্রকার ভেদে ৭৫-৮০ টাকা কেজিতে। বন্দরে বেড়েছে বেচা-বিক্রি। আগে যেখানে প্রতিদিন আমদানি হতো ৫০ থেকে ৭০ ট্রাক, এখন তা দাঁড়িয়েছে ১০০ ট্রাকের ওপরে।

হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারক মৃদুল চৌধুরী বলেন, পুরো মাস জুড়ে যেন হরতাল অবরোধ চলে আসছে; যে কারণেই বন্দরে ছিল না কাঙ্ক্ষিত পাইকার। পণ্যের আমদানি অনেকটাই কম হচ্ছিল। তবে সেই চিত্র যেন অনেকটা বদলে গেছে। বর্তমানে কাঙ্ক্ষিত পাইকার আসায় বন্দরে বেড়েছে পণ্য বিক্রি; সেই সঙ্গে বন্দরে বেড়েছে ভারত থেকে পণ্যের আমদানিও।

আমদানিকারক মামুনুর রশিদ লেবু বলেন, হিলি স্থলবন্দর দিয়ে যেসব পণ্য আমদানি হয়ে থাকে তার মধ্যে অধিকাংশই পেঁয়াজ আলু, কাঁচা মরিচ, খৈল পাথরসহ নিত্যপণ্য। যে সব পণ্য আমদানি হয় সেগুলো বন্দর থেকে বিক্রি করা হয়। পুরো মাস জুড়েই যেন হরতাল আর অবরোধ চলছে। তাই বন্দরে কাঙ্ক্ষিত পাইকার ব্যবসায়ী না আসায় কমে যায় পণ্যের আমদানি। আবারো কর্মযজ্ঞ সৃষ্টি হয়েছে; পাইকাররা দূর-দূরান্ত থেকে বন্দরে আসছেন।

তিনি আরও বলেন, পণ্যের আমদানি বৃদ্ধি পাওয়ায় কমেছে পণ্যের দাম। দুদিনের ব্যবধানে আলুতে ৫ টাকা কমে প্রতি কেজি আলু বিক্রি হচ্ছে ২৫ থেকে ২৭ টাকা। পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৫ টাকা কমে ৭৫ টাকা থেকে ৮০ টাকা কেজিতে।

এ দিকে পণ্যের দাম কমায় খুশি পাইকারি ব্যবসায়ীরা জানিয়ে মহাব্বত আলী বলেন, হিলি বন্দর থেকে প্রতিনিয়তই আমরা আলু-পেঁয়াজ বেশির ভাগ কিনে থাকি। হরতাল অবরোধের কারণে পণ্যের চাহিদা কমতে থাকে। তবে অবরোধ-হরতালের মধ্যেও রাস্তাঘাটে অতিরিক্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনী থাকায় পণ্যবাহী ট্রাকগুলো সঠিক সময়ে গন্তব্যে পৌঁছাতে পারছে; যার কারণে বন্দর থেকে  আলু, পেঁয়াজ, কাঁচামরিচ কিনে বিভিন্ন মোকামে পাঠাচ্ছি।

এ ছাড়া আমদানি বৃদ্ধি পাওয়াই বেড়েছে সরকারের রাজস্ব। কর্মযজ্ঞ সৃষ্টি হয়েছে শ্রমিকদের মধ্যে এমনটাই জানালেন হিলি কাস্টমসের  রাজস্ব কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম।

তিনি বলেন, হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পণ্যের আমদানি কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে। আগে যেখানে আমদানি হতো ৫০ থেকে ৭০ ট্রাক, আর এখন ১০০ ট্রাক ছাড়িয়েছে। এভাবে আমদানি স্বাভাবিক থাকলে সরকারের রাজস্ব বৃদ্ধি পাবে, সৃষ্টি হবে বন্দরে কর্মযজ্ঞ।

বন্দর ও কাস্টমসের তথ্যমতে, চলতি সপ্তাহে দুই কর্ম দিবসে ভারতীয় ৩৩৩ ট্রাকে ১০ হাজার ২০০ মেট্রিক টন পণ্য আমদানি হয়েছে; যার মধ্যে অধিকাংশই পেঁয়াজ ও আলু ও পাথর।

ঝালকাঠি আজকাল