• সোমবার   ০৮ আগস্ট ২০২২ ||

  • শ্রাবণ ২৩ ১৪২৯

  • || ০৮ মুহররম ১৪৪৪

ঝালকাঠি আজকাল

পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে দেশের বিভিন্ন জায়গায় বর্ণাঢ্য আয়োজন

ঝালকাঠি আজকাল

প্রকাশিত: ২৫ জুন ২০২২  

পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতে দেশের বিভিন্ন জেলায় বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। শনিবার (২৫ জুন) সকাল থেকেই আনন্দ র‍্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জয়পুরহাট
স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে জয়পুরহাটে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে আনন্দ র‌্যালি হয়েছে।

শনিবার  (২৫ জুন) সকাল ৯টায়  শহরের শহীদ ডাঃ আবুল কাশেম ময়দান  থেকে একটি আনন্দ র‌্যালিটি বের করা হয়। র‌্যালিটি  শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে কালেক্টরেট মাঠে গিয়ে শেষ হয়।

আনন্দ র‌্যালিতে  জেলা প্রশাসক মো. শরীফুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মাছুম আহাম্মদ ভুঞা, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক আরিফুর রহমান রকেট, সহ- সভাপতি এ্যাড. নৃপেন্দ্রনাথ মন্ডল পিপি,  সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন মন্ডল অংশ নেন। এছাড়া যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষকলীগ, শ্রমিকলীগ, মৎস্যজীবী লীগসহ সব অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা, সরকারী বেসরকারি ও  বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক- শিক্ষার্থীরা র‌্যালিতে অংশ নেন।

ঝিনাইদহ
পদ্মাসেতু উদ্বোধন উপলক্ষে ঝিনাইদহে আয়োজন করা হয় বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের। সকালে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে শহরের প্রেরণা একাত্তর চত্বর থেকে শোভাযাত্রা বের করা হয়। এতে সরকারি বিভিন্ন দপ্তরসহ সামাজিক সংগঠন অংশ নেয়।

শোভাযাত্রাটি শহরের বিভিন্ন সড়ক ঘুরে পুরাতন ডিসি কোর্ট চত্বরে এসে শেষ হয়। পরে পুরাতন ডিসি মুক্তমঞ্চে আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। এতে স্থানীয় সংসদ সদস্য আব্দুল হাই, জেলা প্রশাসক মনিরা বেগম, পুলিশ সুপার মুনতাসিরুল ইসলামসহ অন্যান্যরা বক্তব্য রাখেন। এছাড়াও আতশবাজি উৎসব, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে পালিত হচ্ছে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান।

নাটোর
স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে নাটোরে মিষ্টি বিতরণ বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকালে স্থানীয় কানাইখালি মাঠে সর্বস্তরের জনসাধারণ ও প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত হয়ে একে অপরকে মিষ্টি খাইয়ে দিনটি শুভ সূচনা করেন। এরপর সেখান থেকে বের করা হয় এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা। 

শোভাযাত্রাটি বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে স্থানীয় অনিমা চৌধুরী অডিটোরিয়ামে গিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সভায় জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। আলোচনা সভা শেষে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এর আগে সকালে আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। 

কুমিল্লা
স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে কুমিল্লায় বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের করা হয়েছে। কুমিল্লা জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শনিবার সকালে নগরীর জেলা শিল্পকলা একাডেমি থেকে একটি র‌্যালী বের হয়ে টাউন হল মাঠে এসে শেষ হয়। পরে সেখানে বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম মুক্তমঞ্চে প্রামান্য চিত্র ও পদ্মাসেতুর উদ্বোধনী পর্ব প্রজেক্টরের মাধ্যমে প্রদর্শন করা হয়। 

এসময় জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান, পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ, জেলা পরিষদ প্রশাসক মো. আবু তাহেরসহ প্রশাসন, পুলিশ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার লোকজন অংশগ্রহণ করা হয়। এছাড়াও জেলাজুড়ে নানা কর্মসূচি পালন করা হয়। 

গাজীপুর
স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে গাজীপুরে বর্ণাড্য এক আনন্দ শোভা যাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ সকালে গাজীপুর জেলা প্রসাশনের আয়োজনে এ আনন্দ শোভা যাত্রাটি জেলা প্রশাসনের কার্যালয়ের সামনে থেকে শুরু হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে ঐতিহাসিক রাজবাড়ী ময়দানে গিয়ে শেষ হয়। এ শোভা যাত্রায় গাজীপুরের জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমান, জি এমপি কমিশনার লুৎফুল কবির,পুলিশ সুপার সফিকুল ইসলামসহ জেলার সরকারী বেসরকারী কর্মকর্তা  ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহন করেন।

পরে সরাসরি স্মপ্রচারিত মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখহাসিনা কতৃক পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপভোগ করেন। বিকেলে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

বাগেরহাট
স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধন উদযাপনকে কেন্দ্র করে পদ্মাসেতুর সাজে সেজেছে বাগেরহাট। শনিবার সকাল ৯টায় জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বিভিন্ন ব্যানার-ফেস্টুন ও প্লাকার্ড নিয়ে বর্ণাঢ্য আনন্দ র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়েছে। র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা পরিষদ অডিটোরিয়াম চত্তরে শেষ হয়। এরপর সপ্তাহব্যাপী পদ্মা সেত উপলক্ষ্যে লোকজু মেলার উদ্ধোধন করা হয়েছে।

বর্ণাঢ্য আনন্দ র‌্যালীতে অংশ নেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আজিজুর রহমান, পুলিশ সুপার কে এম আরিফুল হকসহ জেলা ও পুলিশ বাহিনী, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, সড়ক বিভাগসহ সরকারী বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও শিক্ষর্থীসহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার করেক হাজার নারী-পুরুষ। বর্ণাঢ্য আনন্দ র‌্যালীতে সুসজ্জিত পিকআপে করে বাউল শিল্পীরা পদ্মা সেতুর গানসহ পদ্মা সেতু সংক্রান্ত বিভিন্ন ব্যানারর্  নিয়ে বিভিন্ন শ্রেনী ও পেশার মানুষ অংশ নেন।  পদ্মা সেতু আনন্দ মেলার উদ্ধোধন শেষে অনুষ্ঠান সকলকে দেখানোর জন্য স্বাধীনতা উদ্যানে প্রজেক্টরের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দেখানো হবে।

বাগেরহাটে জেলা- উপজেলা প্রশাসন ও মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের উদ্যোগে সাজানো হয়েছে বর্ণিল সাজে। পদ্মা সেতু সংক্রান্ত বিভিন্ন ব্যানার-ফেস্টুন ও পোস্টারে ছেয়ে গেছে বাগেরহাট জেলা। জেলার গুরুত্বপূর্ণ স্থান ও মোড়ে পদ্মা সেতুর থিম সং বাজানো হচ্ছে। বঙ্গবন্ধু ও পদ্মা সেতুর ওপর তথ্যচিত্র প্রচার, বিভিন্ন সড়কে আলোক সজ্জা ও সৌন্দর্যবর্ধণ করা হয়েছে। অন্যদিকে শহরের দড়াটানা সেতু, মুনিগঞ্জ সেতু, মোল্লাহাটের আবুল খায়ের সেতু ও চিতলমারীতে শেখ লুৎফর রহমান সেতুসহ সকল বড় বড় সেতু ও গুরুত্বপূর্ণ সড়কে আলোক সজ্জা করেছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।  যেন নববধূর সাজে সেজেছে বাগেরহাট। স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধনকে কেন্দ্র করে সাধারণ মানুষের মনে অন্যরকম আনন্দ বইছে।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আজিজুর রহমান বলেন, পদ্মা সেতু নিয়ে বাগেরহাটের সাধরাণ মানুষের যে আনন্দ-উচ্ছাস করছে, তাতে জেলা প্রশাসনও সামিল হয়েছে। জেলা ও ৯টি উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আনন্দ র‌্যালি, আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, আনন্দ মেলাসহ নানা আয়োজন করা হয়েছে। স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধন উদ্বোধনী বিভিন্ন স্থানে অনুষ্ঠান বড় পর্দায় সম্প্রচারেরও ব্যবস্থা করা হয় বলে জানান জেলার এই শীর্ষ কর্মকর্তা।  

পটুয়াখালী
পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে লাঘোব হচ্ছে দক্ষিনাঞ্চলের মানুষের দীর্ঘ দিনের ভোগান্তি। তাই পটুয়াখালীতে বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ। সেতু উদ্বোধন সরাসরি উপভোগ করতে এ জেলা থেকে গতকাল শুক্রবার (২৪ জুন) সন্ধ্যায় পদ্মা পাড়ের উদ্দেশ্যে প্রায় ২০ হাজার মানুষ নিয়ে ছেড়ে গেছে ৯ টি ডাবল ডেকার লঞ্চ। 

ইতিমধ্যে এ অঞ্চলে বসানো হয়েছে বিলাস বহুল পরিবহনের কাউন্টার। রবিবার সকাল থেকে ঢাকা-কুয়াকাটা মহাসড়কে চলাচল করবে এসব বাস। সেতু উদ্বোধনের ফলে ত্বরানিত হবে কুয়াকাটা কেন্দ্রিক পর্যটন শিল্প। পায়রা বন্দর কেন্দ্রিক এ অঞ্চলে গড়ে উঠবে শিল্প কারখানা। তাই প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়েছে পটুয়াখালীবাসী।

রাজশাহী
পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের দিনে রাজশাহীতে বর্ণাঢ্য র‍্যালী ও জমায়েত অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকাল ৯টায় নগরীর শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান চত্বরে সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা কর্মচারী, সাধারন মানুষ এক হয়ে আনন্দ র‍্যালীতে যোগ দেন। আনন্দ র‍্যালীটি নগরীর মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্টেডিয়ামে গিয়ে জমায়েতে মিলিত হয়। সেখানে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে পদ্মা সেতু উদ্বোধনের মূল অনুষ্ঠান ডিজিটাল স্ক্রিনে দেখানো হচ্ছে। এ অনুষ্ঠান দেখতে স্টেডিয়ামে ঢল নামে সাধারন মানুষের। 

সাধারন মানুষ জানাচ্ছেন রাজশাহী থেকে সরাসরি পদ্মা সেতু পর্যন্ত যাবার প্রয়োজন না হলেও ব্যক্তিগত ভাবে সকলেই এ উদ্বোধন অনুষ্ঠানের আনন্দের সাথে শামিল। পদ্মা সেতুর উদ্বোধন মানে দেশের উদ্বোধন। এ ছাড়াও দিবসটি উপলক্ষে সারা দিন ব্যাপী আয়োজন রয়েছে রাজশাহীতে । সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে রয়েছে বর্ণিল আতশবাজির আয়োজন। জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের আয়োজনে মিষ্টি বিতরন সহ আনন্দ উল্লাসের কর্মসূচীও রয়েছে সারাদিন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ
স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জে বণার্ঢ্য র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ শনিবার জেলা প্রশাসনের আয়োজনে এই র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়। সকাল  সাড়ে ৮ টায় শহরের গ্রীণভিউ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ থেকে বের হওয়া বণার্ঢ্য র‌্যালিটি সারা জেলা শহর প্রদক্ষিণ করে। প্রদক্ষিণ শেষে বর্ণাঢ্য র‌্যালিটি শহেরর পুরাতন স্টেডিয়ামে এসে শেষ হয়।
 
র‌্যালিতে নেতৃত্ব দেন জেলা প্রশাসক একেএম গালিভ খান, পুলিশ সুপার এএইচএম আবদুর রকিব, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুহা. জিয়াউর রহমানসহ সরকারি-বেসরকারি বিভন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ। এছাড়াও র‌্যালিতে অংশ নেয় মৃক্তিযোদ্ধাসহ  সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পাশাপাশি বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কয়েক হাজার শিক্ষক-শিক্ষার্থী।

এদিকে পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষ্যে তিনদিন ব্যাপী আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, প্রীতি ফুটবল ম্যাচ ও আতশবাজির আয়োজন করেছে জেলা প্রশাসন।

মেহেরপুর
পদ্মা সেতুর উপলক্ষে মেহেরপুরে বর্ণাঢ্য শোভযাত্রা করেছে জেলা প্রশাসন। এ উপলক্ষে আজ  সকাল ১০ টার দিকে জেলা প্রশাসনের কার্যালয় চত্ত্বর থেকে জেলা প্রশাসক ডঃ মুনছুর আলম খানের নেতৃত্বে একটি শোভাযাত্রাটি বের করা হয়। শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে ডঃ শহীদ সামসুজ্জোহা পার্কে গিয়ে শেষ হয় শোভাযাত্রাটি। পুলিশ সুপার রাফিউ আলম, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম.এ.খালেক, সহসভাপতি অ্যাড.ইয়ারুল ইসলামসহ সরকারকী কর্মকর্তা-কর্মচারী, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ শোভাযাত্রায় অংশ নেয়। 

পরে ডঃ শহীদ সামসুজ্জোহা পার্কে মঞ্চে বড় পর্দায় পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপভোগ করেন বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ।

ঝালকাঠি আজকাল