বৃহস্পতিবার   ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২১ ১৪২৬   ০৭ রবিউস সানি ১৪৪১

ঝালকাঠি আজকাল
১০

স্মার্টফোনের জায়গায় স্মার্টগ্লাস

প্রকাশিত: ১৪ নভেম্বর ২০১৯  

প্রযুক্তি দুনিয়ায় আগামী দিনে স্মার্টফোনের জায়গায় খুব দ্রুত স্মার্টগ্লাস জায়গা করে নিতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। বিশ্বের বড় বড় সব প্রযুক্তি পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বর্তমানে ব্যবহারযোগ্য স্মার্টগ্লাস তৈরিতে কাজ করছে। এ তালিকায় রয়েছে মাইক্রোসফট, স্ন্যাপ, ফেসবুক, গুগল, অ্যাপল, আমাজনসহ শীর্ষ অনেক প্রতিষ্ঠান।

স্মার্টফোনের চেয়েও কিভাবে কম দামে স্মার্টগ্লাস গ্রাহকদের হাতে পৌঁছানো যায় তাই নিয়েই এখন চলছে গবেষণা।স্মার্টফোন এখন হাতেই থাকে। সেটির পরিবর্তে স্মার্টগ্লাস থাকবে চোখে। সেটিকেই কিভাবে কথা বলা থেকে শুরু করে স্মার্টফোনের অন্যান্য কাজ সহজ করতে পারবেন গ্রাহকরা সেসব নিয়ে গবেষণাতেই সীমাবদ্ধ নয় প্রযুক্তি দুনিয়ার গবেষকেরা। রীতিমতো নতুন নতুন আধুনিক সুবিধাযুক্ত স্মার্টগ্লাস বাজারজাতের ব্যাপারে অনেকেই এগিয়ে আছে। বিষয়টি নিয়ে প্রযুক্তি বাজার বিশ্লেষকদের মত, আর বেশিদিন লাগবে না যখন অন্য সব স্ক্রিনের জায়গায় থাকবে স্মার্টগ্লাসের স্ক্রিন। যেখানে সবকিছুই করা যাবে।

এ তালিকায় কাজ করাদের মধ্যে এগিয়ে আছে মাইক্রোসফট। প্রতিষ্ঠানটি ইতোমধ্যে অগমেন্টেড রিয়েলিটিভিত্তিক (এআর)হলোলেন্স-২ নামের একটি স্মার্ট গ্লাস অবমুক্ত করেছে। বিশেষভাবে তৈরি এ স্মার্টগ্লাসটি ইতোমধ্যে যুদ্ধক্ষেত্রে থাকা বাহিনীর সদস্যদের দিয়ে পরীক্ষাও করা হয়েছে। কিভাবে যুদ্ধক্ষেত্রে সেনাবাহিনীর সদস্যরা এ গ্লাস থেকে উপকৃত হতে পারেন তা নিয়ে আরো কাজও হচ্ছে। শুরুতে হলোলেন্স-২ এর দাম রাখা হয়েছে ৩ হাজার ৫০০ ডলার।

গুগল উন্মুক্ত করেছে গুগল গ্লাস এন্টারপ্রাইজ এডিশন-২। বর্তমানে গুগলগ্লাসে সব ধরনের তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। এবার নতুন সংস্করণে থ্রিডি এআর সুবিধাও থাকছে। অ্যাপল এআরভিত্তিক একটি স্মার্টগ্লাস নিয়ে কাজ করছে যা ২০২২ সালে বাজারে আসবে।

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুক ওকুলাস ভিআর নিয়ে কাজ করছে অনেকদিন ধরে। এর পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানটি এখন এআরভিত্তিক প্রযুক্তি নিয়েও কাজ করে যাচ্ছে। ফেসবুকের সহযোগী রে-ব্যান এআরভিত্তিক স্মার্টগ্লাস তৈরি করছে যা ২০২৩ এবং ২০২৫ সালে বাজারে পাওয়া যাবে। প্রযুক্তি দুনিয়ার আরেক শীর্ষ প্রতিষ্ঠান অ্যামাজন ইকো ফ্রেমস-২ নামের একটি প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। যদিও প্রতিষ্ঠানটি তাদের এআরভিত্তিক স্মার্টগ্লাসের বিষয়ে কিছু জানায়নি তবে গত সেপ্টেম্বরে প্রতিষ্ঠান এ বিষয়ে নিজেদের আগ্রহের কথা জানিয়েছে। যদিও অ্যামাজনের তৈরি ইকো ফ্রেমস রেগুলার স্মার্টগ্লাস হিসেবেই ব্যবহার করা হচ্ছে যেখানে অ্যামাজনের ভার্চুয়াল সহকারী অ্যালেক্সা বিল্টইন আছে। এ তালিকায় স্ন্যাপ, ম্যাজিক লিপস নামের প্রতিষ্ঠানগুলোও কাজ করে যাচ্ছে।

এই বিভাগের আরো খবর