সোমবার   ২০ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ৬ ১৪২৬   ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

ঝালকাঠি আজকাল
৩৪

বাংলাদেশে বাণিজ্য বাড়াতে আগ্রহী নিউজিল্যান্ড

প্রকাশিত: ১২ ডিসেম্বর ২০১৯  

বাংলাদেশের স্বাস্থ্য প্রযুক্তি, এনার্জি, টেলিকমিউনিকেশনস, এভিয়েশন, খাদ্য ও কৃষি, ডেইরী এবং মেরিন ট্রান্সপোর্টসহ গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন বাণিজ্য খাতে বিনিয়োগ বাড়াতে গভীর আগ্রহ প্রকাশ করেছে নিউজিল্যান্ড।

এফবিসিসিআই এবং নিউজিল্যান্ড বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের যৌথ উদ্যোগে স্থানীয় এক হোটেলে অনুষ্ঠিত নিউজিল্যান্ড-বাংলাদেশ রাউন্ডটেবিলে এই আগ্রহ দেখান সফররত নিউজিল্যান্ড বাণিজ্য প্রতিনিধিদল।

এফবিসিসিআই সহ-সভাপতি জনাব মো: রেজাউল করিম রেজনুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিউজিল্যান্ডের অনারারি কনসাল জনাব নিয়াজ আহমেদ এবং নয়া দিল্লিতে অবস্থিত নিউজিল্যান্ড কনসুলেটের কনসাল জেনারেল মি. রালফ হেইজ ।

আলোচনায় এফবিসিসিআই সহ-সভাপতি জনাব মো: রেজাউল করিম রেজনু তাঁর বক্তব্যে বাংলাদেশের স্থিতিশীল ম্যাক্রোইকনোমিক প্রবৃদ্ধিসহ গত কয়েক দশকে দেশের সার্বিক উন্নয়ন প্রক্রিয়ার চিত্র তুলে ধরেন।

এফবিসিসিআই সহ-সভাপতি দেশের সার্বিক অর্থনৈতিক পরিস্থিতি, দ্রুত অগ্রসরমান উন্নয়ন প্রকল্পসমূহ, বেসরকারি খাতের শীর্ষ সংগঠন হিসেবে বিভিন্ন নীতি প্রণয়নে সরকারের সাথে এফবিসিসিআইয়ের অংশীদারিত্ব এবং দেশের উন্নয়ন প্রক্রিয়ায় সরকারি-বেসরকারি খাতের যৌথ উদ্যোগের বিষয়ে অবহিত করেন।

তিনি বলেন, বর্তমান সময়ের চাহিদা অনুযায়ী বিশেষ করে সরকারের চতূর্থ শিল্প বিপ্লব বাস্তবায়নে জ্ঞান বিনিময়, কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা, বাস্তবায়ন, প্রযুক্তি বিনিময়সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ খাত নিয়ে এফবিসিসিআই কাজ করছে বলেও জানান তিনি।

এফবিসিসিআই সহ-সভাপতি আরও বলেন, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে দুদেশের মধ্যকার দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ৩৩৫ মিলিয়ন ডলারে এসে দাড়িয়েছে যেখানে রপ্তানির পরিমান ৯১.৭৯ এবং আমদানির পরিমান ২৪১.৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

নিউজিল্যান্ড কনসুলেটের কনসাল জেনারেল মি. রালফ হেইজ বলেন, বাংলাদেশ এখন দক্ষিণ এশিয়া তথা বিশ্ব অর্থনীতিতে এক উদীয়মান শক্তি। আর তাই তারা কমনওয়েলথভূক্ত অন্যান্য দেশের পাশাপাশি বাংলাদেশের সাথেও তাদের বিদ্যমান বাণিজ্য আরও বাড়াতে আগ্রহী। বিশেষ করে মি. রালফ স্বাস্থ্য প্রযুক্তি, এনার্জি, টেলিকমিউনিকেশনস, এভিয়েশন, খাদ্য ও কৃষি, ডেইরী এবং মেরিন ট্রান্সপোর্টসহ বাংলাদেশের বভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ খাতে সরাসরি বিনিয়োগ এবং সহযোগীতার আগ্রহ প্রকাশ করেন ।

বাংলাদেশে নিউজিল্যান্ডের অনারারি কনসাল জনাব নিয়াজ আহমেদ বাংলাদেশের মানুষের আতিথেয়তা এবং ঐতিহ্যের বিশ্বব্যাপী সুপরিচিতি উল্লেখ করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন আর্থ-সামাজিক সূচকেও বিশ্বব্যাপী পরিচিত হয়ে উঠেছে। নিউজিল্যান্ড-বাংলাদেশ রাউন্ডটেবিলের মাধ্যমে দুদেশের মধ্যকার ব্যবসায়িক যোগাযোগ, সরাসরি বিনিয়োগ, প্রাযুক্তিক সহযোগীতা সেই সাথে বিদ্যমান বাণিজ্য আরও বাড়বে বলে আশা প্রকাশ করেন জনাব নিয়াজ আহমেদ।

এছাড়াও এফবিসিসিআই পরিচালক শমী কায়সারও আলোচনায় বক্তব্য রাখেন। স্বাস্থ্য প্রযুক্তি, এনার্জি, টেলিকমিউনিকেশনস, এভিয়েশন, খাদ্য ও কৃষি, ডেইরী, মেরিন ট্রান্সপোর্ট, ইন্টিগ্রেটেড সিকিউরিটি সলিউশনসসহ বিভিন্ন বাণিজ্য খাতের নিউজিল্যান্ড ও বাংলাদেশের ব্যবসায়ী প্রতিনিধিবৃন্দ এই রাউন্ড টেবিলে অংশ নিয়ে নিজ নিজ ব্যবসা ক্ষেত্রের প্রেজেন্টেশন দেন।

এই বিভাগের আরো খবর