• মঙ্গলবার   ০২ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৯ ১৪২৭

  • || ১০ শাওয়াল ১৪৪১

ঝালকাঠি আজকাল
১১৯

নলছিটিতে অবৈধ শিশু খাদ্য ও ডিটারজেন্ট তৈরী কারখানাকে জরিমানা 

ঝালকাঠি আজকাল

প্রকাশিত: ১১ মার্চ ২০২০  

 র‌্যাব-৮, বরিশাল প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদক, খুনসহ বিভিন্ন অপরাধের বিরুদ্ধে সফলভাবে কার্যক্রম পরিচালিত করে আসছে। এসবের পাশাপাশি র‌্যাব-৮ অন্যান্য বিভিন্ন জনকল্যাণমূখী কাজ ও করে থাকে। 

এরই ধারাবাহিকতায় দীর্ঘদিন যাবৎ ঝালকাঠি জেলার নলছিটি থানধীন ষাটপাকিয়া এলাকায় একজন অসাধু ব্যবসায়ী অবৈধ শিশু খাদ্য ও ডিটারজেন্ট তৈরী করে প্রতারণার মাধ্যমে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে।

এমন সংবাদ প্রাপ্তিতে র‌্যাব-৮, বরিশালের একটি আভিযানিক দল ঐ এলাকায় জনাব মোঃ সাখাওয়াত হোসেন, এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট, নলছিটি, ঝালকাঠি এর সমন্বয়ে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে এবং হাতেনাতে কারখানার মালিক মোঃ মীর ইমদাদুল ইসলাম(৩২), পিতাঃ মীর শফিকুল ইসলাম, সাংঃ ষাটপাকিয়া, থানাঃ নলছিটি, জেলাঃ ঝালকাঠিকে আটক করে। সে সহজ সরল মানুষকে বিভিন্ন প্রতারণার মাধ্যমে তার কারখানায় তৈরী ভেজাল শিশু খাদ্য এবং অবৈধ ডিটারজেন্ট এর ব্যবসা করছে যা মানুষের শরীরের জন্য খুবই ক্ষতিকর এবং বিপজ্জনক। তার কারখানা তল্লাশী করে বিভিন্ন কোম্পানীর মনোগ্রাম এবং মোড়ক পরিবর্তন করে সরকার অনুমোদিত ব্যতিত শিশু খাদ্য এবং ডিটারজেন্ট পাওয়া যায়। কারখানার মালিক মীর ইমদাদুল ইসলাম তার উৎপাদিত পণ্যের স্বপক্ষে কোন বৈধ কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ হয় এবং মোবাইল কোর্টের সামনে তার দোষ স্বীকার করে।

মোবাইল কোর্টের ম্যাজিস্ট্রেট আটককৃত মোঃ মীর ইমদাদুল ইসলাম(৩২)কে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের অধীনে ৮০,০০০/- টাকা জরিমানা আদায় করেন ও কারখানাটি সিলগালা করে দেন এবং পরবর্তীতে এরূপ অবৈধ কাজ না করার জন্য নির্দেশ প্রদান করেন। জনাব মোঃ সাখাওয়াত হোসেন, এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট, নলছিটি, ঝালকাঠি কর্তৃক জব্দকৃত সকল অবৈধ শিশু খাদ্য ও ডিটারজেন্ট জনসম্মুখে ধ্বংস করা হয়। এ সময় স্থানীয় লোকজন র‌্যাবের কার্যক্রমে সন্তোষ প্রকাশ করেন। 

 

ঝালকাঠি আজকাল
উপজেলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর