বৃহস্পতিবার   ২১ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৭ ১৪২৬   ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

ঝালকাঠি আজকাল
১২

নভেম্বরেও ঘূর্ণিঝড়ের আভাস

প্রকাশিত: ১৮ অক্টোবর ২০১৯  

 


বর্ষা বিদায় নিলেও শঙ্কা কাটেনি ঘূর্ণিঝড়ের। আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, অক্টোবরের মতো নভেম্বরেও এক থেকে দুটি নিন্মচাপের সৃষ্টি হতে পারে সাগরে। যার মধ্যে একটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে।
বর্ষার বিদায়ে শীতের আবহ বিরাজ করছে প্রকৃতিতে। ভোরের শিশিরের পাশাপাশি রাতের বাতাসে রাজধানীতেও মিলছে হিম অনুভূতি। তবে শীত জেঁকে বসবে নভেম্বরের শেষের দিকে। এ মাসেই ক্রমান্বয়ে দিন ও রাতের তাপমাত্রা কমতে থাকবে। বৃষ্টিপাত থাকবে স্বাভাবিক।
আবহাওয়া অধিদফতরের পরিচালক সামছুদ্দিন আহমেদ জানিয়েছেন, নভেম্বরে এক থেকে দুটি নিন্মচাপের সম্ভাবনা রয়েছে। যার মধ্যে অন্তত একটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। তবে তার রূপ কেমন হবে, সেটি ঘূর্ণিঝড় হলেই বলা যাবে।
ডিসেম্বর নাগাদ এবার তীব্র শৈত্যপ্রবাহের কোনো আভাস নেই আবহাওয়া অফিসের কাছে। সংস্থাটি বলছে, ডিসেম্বরেও বৃষ্টিপাত স্বাভাবিক মাত্রায় থাকবে। তবে মাসের শেষার্ধ্বে দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে ১-২টি মৃদু (৮-১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস) এবং মাঝারি (৬-৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস) ধরনের শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। আরে শেষ রাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের উত্তরাঞ্চল ও নদ-নদী অববাহিকায় মাঝারি বা ঘন কুয়াশা এবং অন্যত্র হালকা থেকে মাঝারি কুয়াশা পড়তে পারে।
শনিবার (১৯ অক্টোবর) সন্ধ্যা দেওয়া এক পূর্বাভাসে সংস্থাটি জানিয়েছে, উত্তর বঙ্গোপসাগরে একটি লঘুচাপ বিরাজ করছে। এজন্য খুলনা বিভাগের দু’এক জায়গায় বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়া দেশের অন্যত্র অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। আগামী পাঁচদিনে রাতের তাপমাত্রা ক্রমান্বয়ে কমবে।
আবহাওয়াবিদ দিলরুবা বেগম কৃষি আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলেছেন, আগামী ২১ অক্টোবর পর্যন্ত দৈনিক ৬ দশমিক ২৫ থেকে ৭ দশমিক ২৫ ঘণ্টা পর্যন্ত উজ্জ্বল সূর্যকিরণ থাকবে। আর বাষ্পীভবন হবে ২ দশমিক ২৫ মিলিমিটার।

এই বিভাগের আরো খবর