মঙ্গলবার   ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ১ ১৪২৬   ১৭ মুহররম ১৪৪১

ঝালকাঠি আজকাল
৩৮

দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টার সময় স্কুলের দপ্তরী আটক

প্রকাশিত: ২১ আগস্ট ২০১৯  

 

ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলায় দ্বিতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে বিদ্যালয়ের দপ্তরী কাম নৈশপ্রহরীকে করেছে পুলিশ। অভিযুক্ত মিরাজুর রহমান মিরাজ (৩০) ওই উপজেলার ভবানীপুর গ্রামের জয়নাল উদ্দিনের ছেলে এবং ৮১ নং ভবানীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরী কাম নৈশপ্রহরী পদে চাকরিরত।
 বুধবার (২১ আগস্ট) বেলা ১২টার দিকে স্কুল চলাকালে এ ঘটনা ঘটে।  
শিশুটির বাবা সাংবাদিকদের জানান, সকাল ১১টার দিকে ডেঙ্গু প্রতিরোধে বিদ্যালয়ের আশেপাশে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার কাজ করছিল কয়েকজন শিক্ষার্থী। এ সময় দুই শিক্ষক দুটি ক্লাসে পাঠদানে ছিলেন ।
আর এ সুযোগে বিদ্যালয়ের দপ্তরী কাম নৈশপ্রহরী মিরাজুর রহমান মিরাজ ওই স্কুলের দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ুয়া তার শিশু মেয়েকে লাইব্রেরিতে ডেকে নিয়ে ধর্ষণচেষ্টা করে।
এসময় মেয়েটি চিৎকার করে দৌড়ে পালিয়ে বাড়িতে চলে যায়। পরে মায়ের কাছে বিষয়টি জানায়।
এদিকে খবর পেয়ে স্থানীয় লোকজন মিরাজকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ স্কুল থেকে মিরাজকে আটক করে নলছিটি থানায় আনে।
নলছিটি থানার ওসি মো. সাখাওয়াত হোসেন বলেন, শিশু ছাত্রী ও তার পরিবার থানায় এসেছে। তাদের সাথে কথা বলা হচ্ছে। আর অভিযুক্ত মিরাজকেও  আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযোগ ও তদন্ত সাপেক্ষে আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে, বলেন ওসি মো. সাখাওয়াত হোসেন।
এদিকে, স্কুলের প্রধান শিক্ষক ছুটিতে রয়েছে। তার দায়িত্বে থাকা সহকারী শিক্ষক রিপা আক্তার বলেন, আমরা মাত্র দুই শিক্ষক স্কুলের ক্লাসে ছিলাম। পরে শিশুটির মুখে অভিযোগ শুনতে পাই। এ ব্যাপারে স্কুলের পক্ষ থেকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে বিষয়টি দাপ্তরিকভাবে জানানো হয়েছে, বলেন ওই শিক্ষক।এদিকে, এলাকার একাধিক লোক অভিযোগ করে সাংবাদিকদের বলেন, মিরাজের বিরুদ্ধে এলাকায় নারী ঘটিত নানা রকম অভিযোগ রয়েছে। রাজনৈতিক প্রভাবের কারণে একের পর এক অপকর্ম করে সে ছাড় পেয়ে যাচ্ছে বলেও অভিযোগ এলাকাবাসীর।

এই বিভাগের আরো খবর