রোববার   ২৯ মার্চ ২০২০   চৈত্র ১৪ ১৪২৬   ০৪ শা'বান ১৪৪১

ঝালকাঠি আজকাল
৪৮৬

ট্রাম্পের মাথার জন্য ৮০ মিলিয়ন ডলার ঘোষণা ইরানের!

ঝালকাঠি আজকাল

প্রকাশিত: ৬ জানুয়ারি ২০২০  

 


এবার মার্কিন প্রেসিডিন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মাথার বিনিময়ে ৮০ মিলিয়ন ডলার দেওয়া ঘোষণা দিয়েছে ইরান। এর আগে মার্কিন হামলায় জেনারেল কাশেম সোলেমানিকে হত্যা করার জেরে পাল্টা আঘাতের হুঁশিয়ারি দেয় ইরান। 


রোববার (৫ জানুয়ারি) দেশটির মাশহাদ শহরের রাস্তায় জনতার ঢল নামে। হাজার হাজার বিক্ষুদ্ধ ইরানি 'আমেরিকা নিপাত যাক' সহ বিভিন্ন মার্কিন বিরোধী স্লোগান দিতে থাকে। এসময় সোলোমানির শ্রদ্ধা অনুষ্ঠানে অংশ নিতে আসা জনসমূদ্রের সামনে দেশটির শীর্ষ নেতারা ঘোষণা দিয়েছেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের মাথা এনে দিতে পারলে ৮০ মিলিয়ন দেওয়া হবে। দেশটির একাধিক টিভি চ্যানেল তা সম্প্রচার করেছে বলে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে উল্লেখ করা হয়েছে।

ইরানের মাশহাদ শহরে জানাজা ও শ্রদ্ধা অনুষ্ঠানে দেশটির এক শীর্ষ নেতা বলেন, এদেশের প্রায় ৮০ মিলিয়ন জনসংখ্যা রয়েছে। প্রত্যেকে যদি এক ডলার করে দেয় তাহলে ৮০ মিলিয়ন হবে। আর যে ব্যক্তি ট্রাম্পের মাথা এনে দিতে পারবে তাকে ওই ৮০ মিলিয়ন ডলার দেওয়া হবে।     

এদিকে সোলেমানিকে হত্যার প্রতিবাদে ইরানে চার দিনের শোক ঘোষণা করা হয়েছে। আর তার মরদেহ শিয়া মুসলমানদের ৫টি পবিত্র স্থানে নেওয়া হবে। এর মধ্যে একটি মাশহাদে আর বাকী চারটি ইরানে।

বৃহস্পতিবার (২ জানুয়ারি) রাতে বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মার্কিন হামলায় নিহত হন ইরানি বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর এলিট কুদস ফোর্সের প্রধান জেনারেল কাসেম সোলেমানি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশে সোলেমানিকে হত্যা করা হয় বলে নিশ্চিত করে পেন্টাগন।

এরই মধ্যে সোলেমানি হত্যায় ক্ষুব্ধ ইরানের জেনারেল গোলাম আলি আবু হামজাহ হরমুজ প্রণালীতে গুরুত্বপূর্ণ মার্কিন স্থাপনায় হামলার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। তার বাহিনী ডেস্ট্রয়ার ও যুদ্ধজাহাজসহ পারস্য উপসাগর ও ইজরায়েলের নিকটবর্তী প্রায় ৩৫টি মার্কিন স্থাপনার দিকে তাক করে আছে বলে জানান তিনি।

শনিবার (৪ জানুয়ারি) এক টুইট বার্তায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ইরানের ৫২টি স্থাপনা চিহ্নিত করেছে, যা অত্যন্ত উচ্চপর্যায়ের এবং ইরানের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। যদি তেহরান আক্রমণ করে তাহলে ওইসব স্থাপনা এবং ইরান নিজেও অত্যন্ত দ্রুত ও কঠিন আঘাতের শিকার হবে। যুক্তরাষ্ট্র আর কোনো হুমকি চায় না।

১৯৭৯ সালের দিকে ৫২ জন মার্কিন নাগরিককে প্রায় একবছর জিম্মি করে রাখার প্রতীক হিসেবে ইরানের ৫২টি স্থাপনা চিহ্নিত করা হয়েছে বলেও জানান ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ঝালকাঠি আজকাল
এই বিভাগের আরো খবর