বৃহস্পতিবার   ২১ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৭ ১৪২৬   ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

ঝালকাঠি আজকাল
২০

জীবন রক্ষায় ‘সিপিআর’

প্রকাশিত: ১৮ অক্টোবর ২০১৯  


'জরুরি মুহূর্তে জীবন রক্ষায় কার্ডিও-পালমোনারি রিসাসসিটেশন- সিপিআর (জীবন রক্ষাকারী চিকিৎসা কৌশল) একটি আধুনিক ও কার্যকর স্বাস্থ্যসেবা। এ সেবার মাধ্যমে সাময়িকভাবে হৃৎপিণ্ড ও ফুসফুসের কাজ কিছু সময়  কৃত্রিমভাবে চালিয়ে মস্তিস্কে রক্ত ও অক্সিজেন সরবরাহ করা যায়।' 

'তাছাড়া হার্ট অ্যাটাক, পানিতে ডুবে যাওয়া বা ইলেক্ট্রিক শকের মত বিভিন্ন কারণে শ্বাস বা হৃদস্পন্দন বন্ধ হয়ে গেলেও জরুরিভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা হিসেবে সিপিআর দেয়া হয়। এটি বিশ্বব্যাপী বহুল প্রচলিত ও স্বীকৃত। তবে আমাদের দেশের জনসাধারণ বিষয়টি নিয়ে খুব অবগত নয়।'

শুক্রবার বিকালে নগরের পার্কভিউ হাসপাতাল কনফারেন্স হলে আয়োজিত ‘হ্যান্ডস অন সিপিআর’ শীর্ষক সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।
মেডিক্যাল শিক্ষার্থী ও চিকিৎসকদের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘ইয়াং সোশ্যাল এক্টিভিজম বোর্ড-ওয়াই স্যাব’ এর একাডেমিক কর্মসূচি ‘হেলথ স্কুল’ শীর্ষক কর্মশালার আয়োজন করে। কর্মশালায় চট্টগ্রামের বিভিন্ন মেডিক্যাল কলেজের প্রায় ৪০ জন তরুণ চিকিৎসক ও শেষ বর্ষ শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন। প্রধান প্রশিক্ষক ছিলেন চট্টগ্রাম ইন্টারন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের এনেস্থেসিওলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. নাদিম হায়দার। সমাপনী পর্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের এনেস্থেসিওলজি বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. একেএম শামছুল আলম, পার্কভিউ হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. এটিএম রেজাউল করিম, মোডাস ইন্টারন্যাশনাল এর রিজিওনাল অফিসার মো. সেলিম জাহাঙ্গীর প্রমুখ।

ওয়াই স্যাব এর ফাউন্ডার প্রেসিডেন্ট ডা. হামিদ হোছাইন আজাদ বলেন, ‘হ্যান্ডস অন সিপিআর’ কর্মশালাটি আমাদের নিয়মিত আয়োজন। দেশের সকল নাগরিকের এ বিষয়ে জ্ঞান থাকা জরুরি। কিন্তু দুঃখজনক হলো আমাদের দেশে এ বিষয়ে প্রশিক্ষণের সুযোগ প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল। তাই প্রাথমিকভাবে বিভিন্ন মেডিক্যালের তরুণ চিকিৎসক ও মেডিক্যাল শিক্ষার্থীদের নিয়ে এ আয়োজন করা হচ্ছে। ভবিষ্যতে সাধারণ পর্যায়ে মানুষদের জন্যও এ আয়োজন করার ইচ্ছে আছে। তাছাড়া কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়সহ যে কোনো সামাজিক প্রতিষ্ঠান সিপিআর বিষয়ক কর্মশালা আয়োজনের আগ্রহ প্রকাশ করলে আমরা সর্বাত্মক সহযোগিতা করব।’