• বুধবার   ২১ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ৬ ১৪২৭

  • || ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ঝালকাঠি আজকাল

ঘরের যে জিনিস হতে পারে মৃত্যুর কারণ

ঝালকাঠি আজকাল

প্রকাশিত: ১৪ অক্টোবর ২০২০  

বাড়িতে নানা কাজে আমরা বিভিন্ন কেমিকেল পণ্য ব্যবহার করে থাকি। এর মধ্যে বেশ কিছু সামগ্রী এতটাই ক্ষতিকারক যে এর ফলে আপনার মৃত্যু পর্যন্ত ঘটতে পারে। বাড়ি-ঘর পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে আমরা বিভিন্ন কেমিকেলের ব্যবহার করে থাকি।  

অজান্তেই এই কেমিকেল যখন ঘ্রাণ অথবা স্পর্শের মাধ্যমে আমাদের শরীরে প্রবেশ করে তার জেরে মৃত্যু পর্যন্ত ঘটতে পারে! এমনও কিছু কেমিকেল রয়েছে যার ব্যবহারের ফলে ক্যান্সারের মতো রোগের প্রভাব অনেকগুণ বেড়ে যায়। এছাড়াও শরীরের অন্যান্য অঙ্গ প্রত্যঙ্গগুলো যেমন কিডনি, হার্ট, চোখ, বিশেষভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে তাই এই ধরনের সামগ্রী থেকে দূরে থাকাটাই ভালো।   

চলুন জেনে নেয়া কোন পণ্যগুলো ব্যবহারে রয়েছে মৃত্যুর ঝুঁকি- 

এয়ার ফ্রেশনার 
বাড়ির বোরিং পরিবেশ থেকে মুক্তি পেতে আবার কখনও বা দুর্গন্ধ থেকে মুক্তি পেতে এয়ার ফ্রেশনারের ব্যবহার আজকাল খুবই সাধারণ ব্যাপার। কিন্তু এয়ার ফ্রেশনারের মধ্যে ব্যবহৃত রাসায়নিক পদার্থ ক্যান্সারের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। সরাসরি ত্বক, ফুসফুস এবং চোখের ক্ষতি করতে পারে এয়ার ফ্রেশনার। 

ব্লিচিং পাউডার 
সাধারণ বাড়ি পরিষ্কারের কাজে ব্লিচিং পাউডার ব্যবহার করে থাকি অনেকে।কিন্তু এই ব্লিচিং পাউডারের মধ্যেই বিভিন্ন ক্ষতিকারক উপাদান লুকিয়ে রয়েছে। যদি সরাসরি ত্বকের সংস্পর্শে আসে ব্লিচিং পাউডার তাহলে তা ত্বকের ক্ষতি করতে পারে। তেমনি ব্লিচিং পাউডার ব্যবহার করলে শ্বাসকষ্টের সমস্যাও দেখা দিতে পারে।

কার্পেট ক্লিনার 
বাড়ির কার্পেট নোংরা হয়ে গেলে কার্পেট ক্লিনার ব্যবহার করতে দেখা যায়। এই কার্পেট ক্লিনারের মধ্যে অ্যামোনিয়াম হাইড্রোক্সাইড থাকে।  আপনার চোখ, ত্বক, এবং ফুসফুসের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকারক। এছাড়াও কার্পেট ক্লিনারের মধ্যে এমন কিছু রাসায়নিক পদার্থ রয়েছে। যা লিভার এবং কিডনির ক্ষতি করতে পারে।

গাড়ি ক্লিনার  
গাড়ি ধোয়ার জন্য এখন বাজারে বিভিন্ন ধরনের গাড়ি ক্লিনার এবং পালিশের জন্য কেমিকেল পাওয়া যায়। এর ব্যবহারও ত্বক, ফুসফুস, এবং চোখের ক্ষতি করতে পারে। তাই এই ধরনের ক্যেমিকেল জাতীয় পদার্থ ব্যবহার করার আগে সাবধানতা অবলম্বন করা উচিত। 

ডিশ ওয়াশার 
বাসন ধোয়ার জন্য যে ধরনের সাবান, বা ক্লিনার ব্যবহার করা হয় তার মধ্যে ক্লোরিন থাকে। বাচ্চাদের তাই এর থেকে নিরাপদ দুরত্বে রাখাই ভাল। কেননা ক্লোরিন শিশুদের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকারক।

ড্রেন ক্লিনার 
ড্রেনে ময়লা জমে বন্ধ হয়ে গেলে তা বেশিরভাগ সময় নিজেদেরই পরিষ্কার করে নিতে হয়। সিঙ্ক বা বেসিন পরিষ্কার করার জন্য যে সব ক্লিনার পাওয়া যায় তার মধ্যে হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিড বা সালফিউরিক অ্যাসিড থাকে । যা ত্বকের পক্ষে অত্যন্ত ক্ষতিকারক।এই ধরনের রাসায়নিক পদার্থের ব্যবহারে মৃত্যু পর্যন্ত ঘটতে পারে। 

ডিটারজেন্ট 
ময়লা জামা-কাপড় পরিষ্কার করার জন্য বিভিন্ন ধরনের ডিটারজেন্ট বাজারে পাওয়া য়ায়। এই ডিটারজেন্টের মধ্যে ব্লিচিং পাউডার সহ একাধিক রাসায়নিক উপাদান থাকে যা শরীরে জন্য খুবই ক্ষতিকারক।

ন্যাপথলিন 
জামা কাপড়ের সুগন্ধ ঠিক রাখতে অনেক সময় ন্যাপথনিলের ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এই ন্যাপথলিনের গন্ধ কখনও মাথা ব্যাথা কখনও বা শ্বাসকষ্টের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। তাই ন্যাপথলিন ব্যবহারের আগে সতর্ক থাকা উচিত। 

ঝালকাঠি আজকাল