বুধবার   ২০ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৫ ১৪২৬   ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

ঝালকাঠি আজকাল
২৭

গুনাহ কেবল পরকালেই নয়, ইহকালেও কাল হয়ে দাঁড়ায়

প্রকাশিত: ৪ নভেম্বর ২০১৯  

 

একদা ইমাম শাফিয়ি (রহ.) তার উস্তাদ ইমাম ওয়াকি (রহ.)-কে বলছিলেন, ‘উস্তাদ, আমি আমার ইলমে ঘাটতি অনুভব করছি।’ তখন ওয়াকি (রহ.) বললেন, ‘ইলম (জ্ঞান) আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালার নুর। আর আল্লাহ তাঁর এই নুর কোন গুনাহগার বান্দাকে দেন না।’ 

একবার ইমাম শাফিয়ি (রহ.) বলছিলেন, ‘আমি একদা রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলাম। আমার সামনে একজন মহিলা ছিলেন। হঠাৎ একটি ঝড়ো বাতাস আসল। তাতে ওই মহিলার কাপড় খানিকটা টাখনুর উপরে উঠে গেল। সেটা আমার চোখে পড়ল। আর আমি অনুভব করলাম যেন আমার স্মৃতিশক্তি কিছুটা লোপ পেল।’

সুবহানাল্লাহ! কী পরিমাণ ভয় করতেন তাঁরা গুনাহকে। আর আমরা আজ কিসের মধ্যে ডুবে থাকি সারাদিন?

শুধু ইলমই নয়, গুনাহের কারণে রিজিকও সংকীর্ণ হয়ে পড়ে। আর রিজিক মানে শুধু ধনসম্পদ নয়; সুস্বাস্থ্য, সুসন্তান, ভালো বাবা-মা, ভালো স্বামী-স্ত্রী, সময়ের বরকত এসবই রিজিকের অন্তর্গত। মানুষের জন্য যে রিজিক বরাদ্দ আছে তা সে অবশ্যই পাবে, কিন্তু গুনাহগারের সেই রিজিককে আল্লাহ ছোট করে দেবেন। কারণ উত্তম কর্ম রিজিক বাড়িয়ে দেয়, আর গুনাহ রিজিক কমিয়ে দেয়।

রাসুলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বলেন, আল্লাহ তায়ালা তোমাদের মধ্যে উত্তম চরিত্র বন্টন করে দিয়েছেন। যেমন তিনি তোমাদের মাঝে রিজিক বন্টন করে দিয়েছেন। আল্লাহ তায়ালা যাকে ভালাবাসেন তাকে দুনিয়া দিয়ে থাকেন, আবার যাকে অপছন্দ করেন তাকেও দিয়ে থাকেন। (অর্থাৎ ভালো-মন্দ নির্বিশেষে সকলকে তিনি পার্থিব সম্পদ দিয়ে থাকেন) আর তিনি ঐ ব্যক্তিকেই ঈমান দিয়ে থাকেন যাকে তিনি ভালোবাসেন। যে ব্যক্তি অর্থ-সম্পদ খরচ হওয়ার ভয়ে কৃপণতা করে, দুশমনের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে ভয় পায় এবং রাতে সফর করতে আশংকা করে, সে যেন অধিক হারে পাঠ করে ‘সুবহানাল্লাহ ওয়াল হামদুলিল্লাহ ওয়ালা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াল্লাহু আকবার।’ [সিলসিলাতুস সহিহাহ : ২৭১৪] 

মাকাল ইবনু ইয়াসার থেকে বর্ণিত। রাসুলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেন, তোমাদের রব বলেন : ‘হে বনি আদম, তুমি আমার ইবাদতের জন্য মনোনিবেশ করো, আমি তোমার অন্তরকে সচ্ছলতায় ভরে দেব, তোমার হাত রিজিক দ্বারা পূর্ণ করে দেব। হে বনি আদম, তুমি আমার থেকে দূরে যেয়ো না, তাহলে আমি তোমার অন্তর অভাবে পূর্ণ করে দেব এবং তোমার দু’হাতকে কর্মব্যস্ত করে দেব।’ [মুসতাদরাক আল-হাকেম]

আল্লাহ তায়ালা বলেন, ‘আর যে কেউ আল্লাহকে ভয় করবে, আল্লাহ তার নিষ্কৃতির পথ বের করে দেবেন এবং তাকে ধারনাতীত উৎস হতে রুজি দান করবেন।’ [আল-কুরআন, ৬৫ : ২-৩] 

এই বিভাগের আরো খবর