শুক্রবার   ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৯ ১৪২৬   ১৫ রবিউস সানি ১৪৪১

ঝালকাঠি আজকাল
৮৪৪

আ.লীগের তৃনমুল থেকে উঠে আসা মহিলালীগ সভানেত্রী লাইজু

প্রকাশিত: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  



আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ঝালকাঠির রাজাপুরে  উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হিসেবে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন পেতে ফরম জমা দিলেন উপজেলা মহিলালীগের সভানেত্রী আফরোজা আক্তার লাইজু। আ.লীগের তৃনমুল থেকে উঠে আসা এই নেত্রী গত বুধবার দুপুরে আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তিনি এ মনোনয়ন ফরম জমা দেন। আফরোজা আক্তার লাইজু রাজাপুর উপজেলায় আ.লীগের দুর্দিনের কান্ডারি ও দীর্ঘদিন উপজেলা মহিলালীগের সভানেত্রী হিসেবে দায়ীত্ব পালন করে দলকে সু-সংগঠিত করে রেখেছেন। তিনি বর্তমানে উপজেলা পরিষদে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে দায়ীত্ব পালন সহ বিগত দু’বার সুনামের সাথে দায়ীত্ব পালন করেছেন। শিক্ষক দম্পতির সন্তান আফরোজা আক্তার লাইজু ছাত্রজীবন থেকে আওয়ামী রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত থাকাসহ পাশাপাশি নারী অধিকার প্রতিষ্ঠা, নারীর ক্ষমতায়ন এবং আর্থসামাজিক উন্নয়ন কর্মকান্ডের  সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন। নির্বাচন কমিশন থেকে মার্চ মাসে ৪র্থ ধাপে রাজাপুর উপজেলা নির্বাচন সম্পন্ন করার ঘোষণা দেয়ায় স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতারা নড়ে-চড়ে বসছেন। দল থেকে মনোনয়ন নিতে আওয়ামীলীগ নেতারা তৃণমূল পর্যায়ের নেতা কর্মীদের সাথে উঠান বৈঠক করে স্ব-স্ব পক্ষে সমর্থন আদায় করে কেন্দ্রীয় নেতাদের আর্শিবাদ নিতে এখন সম্ভাব্য চেয়ারম্যান ও ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থীরা ঢাকায় অবস্থান করছেন। ঝালকাঠি জেলার অন্যান্য উপজেলার সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীদের ন্যায় রাজাপুর উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের নেতা কর্মীদের পরামর্শে এবার কোমর বেঁধে নির্বাচনী মাঠ কাঁপাচ্ছেন আওয়ামীলীগ পরিবারের সন্তান আফরোজা আক্তার লাইজু। তিনি বর্তমানে দলীয় কর্মীদের নিয়ে ঢাকায় অবস্থান করছেন পাশাপাশি মনোয়ন বোর্ডের সদস্যদের গ্রীণ সিগন্যাল পেয়ে এ নেতা দলীয় মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন বলে বিশেষ সূত্রে জানাযায়। তাকে সমার্থীত স্থানীয় আওয়ামীলীগ  নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের জোরালো দাবি এ উপজেলায় প্রার্থীর তালিকা দীর্ঘ হলেও স্বচ্ছ ভাবমূর্তি, তৃণমূলে গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে আফরোজা আক্তার লাইজুর। তিনি গত দশ বছর ধরে মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করে উপজেলার সকল মানুষের কাছে বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন। ছয়টি ইউনিয়ন নিয়েগঠিত এ উপজেলায় প্রথম নারী প্রার্থী হিসেবে তার অংশগ্রহনে নারী ভোটারসহ অনেকেই ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন।
নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী আফরোজা আক্তার লাইজ ুবলেন, ‘আর্থসামাজিক ও নারী উন্নয়নে কাজ করতে গিয়ে নারীর পাশাপাশি অনেক পুরুষের সহযোগিতা পেয়েছি। 'শেখ হাসিনার  নেতৃত্বাধীন সরকারের দৃঢ় রাজনৈতিক অঙ্গীকারের ফলেই আমি দ্রুততার সহিত সেবার পরিধি বিস্তৃত  করতে সক্ষম হয়েছি। সবার উৎসাহ ও অনুপ্রেরণায় আমার কাজের পরিধি আরো বাড়াতে চেয়ারম্যান পদে  প্রতিদ্বন্ধিতা করবো। আশা করি দলীয় নেতাকর্মী ও জনসমর্থনের কারনে জননেত্রী  শেখ হাসিনা আমাকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণের সুযোগ  দিবেন। ’বিভিন্ন দিকদিয়ে রাজাপুর উপজেলা উন্নয়নে পিছিয়ে আছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার  স্বপ্ন পূরণে রাজাপুর উপজেলাকে মডেল হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ করার অঙ্গীকার করছি। এ জন্য হিন্দু, মুসলমান,  বৌদ্ধ, খ্রিষ্টানসহ সকলের দোয়া ও আশির্বাদ প্রত্যাশা করছি।
প্রসঙ্গত, আফরোজা আক্তার লাইজু এর আগেও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস-চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছিলেন। এছাড়া ঝালকাঠি জেলার ইতিহাসে এই প্রথম রাজাপুর উপজেলা চেয়ারম্যান পদে সম্ভব্য নারী প্রার্থীর পরিবার আওয়ামীলীগের জন্মলগ্ন থেকেই দলের সাথে সম্পৃক্ত। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি রাজাপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ গোলাম বারি খান এর স্ত্রী ও তিন সন্তানের জননী। তার পিতা থানা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি প্রবীন নেতা অধ্যাপক আবুল হোসেন ফরাজী, চাচা প্রবীন নেতা স্বাধীনতা উত্তর উপজেলার গালুয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও আমৃত ্যুউপজেলা আ.লীগের  দপ্তর সম্পাদক মরহুম নুর হোসেন ফরাজী,  মামা আমৃত্য ুউপজেলা আ,লীগের সাধারন সম্পাদক মরহুম অ্যাডভোকেট হোসেন আলী পনু মোল্লা, বড় ভাই ৭৫ পরবর্তী থানা ছাত্রলীগের সভাপতি, ছোট ভাই  বোনসহ পরিবারের সদস্যরা আওয়ামীলীগ থানা ও জেলা কমিটিসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্রলীগের গুরুত্তপূর্ন পদে দ্বায়িত্ব পালন করেন।

এই বিভাগের আরো খবর